Patuakhali

পটুয়াখালী

রায়েরকাঠি জমিদারবাড়ি, মঠবাড়িয়ার সাপলেজা কুঠিবাড়ি, প্রাচীন মসজিদ, মঠবাড়িয়ার মমিন মসজিদ, শ্রীরামকাঠি প্রণব মঠ সেবাশ্রম, গোপালকৃষ্ণ টাউন ক্লাব, শেরেবাংলা পাবলিক লাইব্রেরি, মাঝের চর মঠবাড়িয়া, পাড়েরহাট জমিদারবাড়ি, ঐতিহাসিক ঘটনাবলি থেকে জানা যায যে, পটুয়াখালী চন্দ্রদ্বীপ রাজ্যের অন্তর্ভক্ত ছিল। পটুয়াখালী নামকরণের পিছনে প্রায় সাড়ে তিনশত বছরের লুন।টন অত্যাচারের ইতিহাস জড়িত আছে বলে জানা যায়। পটুয়াখালী শহরের উত্তর দিক দিয়ে প্রবাহিত নদীটি পূর্বে ভরনী খাল নামে পরিচিত ছিল। ষোড়শ শতাব্দীর শুরু থেকে পর্তুগীজ জলদস্যুরা এই খালের পথ দিয়ে এস সন্নিহিত এলাকায় নির্বিচারে অত্যাচার হত্যা লুন্ঠন চালাত। স্থানীয় লোকেরা এই হানাদারদের ‘নটুয়া’ বলত এবং তখন থেকে খালটি নটুয়ার খাল নামে ডাকা হয়। কথিত আছে, এই “নটুয়ার খাল” খাল থেকে পরবর্তীতে এ এলাকার নামকরণ হয় পটুয়াখালী।

 

বিখ্যাত খাবার: 

নাপ্পি

 

বিখ্যাত স্থান: 

কুয়াকাটা

কানাই বলাই দিঘী

কাজলারচর

ফতেরারচর

কুয়াকাটা সমুদ্রসৈকত

কুয়াকাটা বৌদ্ধ মন্দির

মির্জাগঞ্জ উপজেলায় হযরত ইয়ার উদ্দিনখলিফার মাজার

পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়

সোনারচর

কুয়াকাটা রাখাইনপল্লী

মজিদবাড়িয়া মসজিদ

সীমা বৌদ্ধ বিহার

দশমিনায় এশিয়ার বৃহত্তম বীজ বর্ধন খামার

পায়রা সমুদ্রবন্দর

পানি যাদুঘর

পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ

কালাইয়া প্রাচীন বন্দর